Space for rent
Wednesday, 15 August, 2018, 3:33 AM
পেট্রাপোল ইমিগ্রেশন পারাপারে সময় বেধে দেওয়ায় পর্যটকরা বিপাকে
Published : Wednesday, 8 November, 2017 Time : 10:15 AM, Count: 1019
A+ A- A
আসাদুজ্জামান আসাদ, বিশেষ প্রতিনিধি, বেনাপোল থেকেঃ ভারতের ভিসা সহজীকরণ করা হলেও মাল্টিপল, টুরিস্ট, বিজনেস ও মেডিকেল ভিসায় বাংলাদেশি যাত্রীদের ওপর পেট্রাপোল হরিদাসপুর ইমিগ্রেশনের অঘোষিত নিষেধাজ্ঞায় জটিলতা বেড়েছে। 

গত তিন দিনে বেনাপোল হয়ে ভারতের হরিদাসপুরে ঢোকার সময় অন্তত ২৬ জন বাংলাদেশি যাত্রীকে তাদের পাসপোর্টে ‘রিফিউজড’ সিল মেরে ফেরত পাঠিয়েছে ভারতীয় ইমিগ্রেশন পুলিশ। 

পাসপোর্টযাত্রীরা অভিযোগ করে বলছেন, বেনাপোলের বিপরীতে ভারতের পেট্রাপোল ইমিগ্রেশন কর্তৃপক্ষ ব্যবসায়ীক (বিজনেস) ভিসায় সপ্তায় একবার ও ভ্রমন ভিসায় দুই মাস অন্তর, মেডিকেল ভিসায় বছরে তিনবার আর মাল্টিপল ভিসার ক্ষেত্রে মাসে দুই বারের বেশি ভারতে যেতে দিচ্ছেন না।
বাংলাদেশ ইমিগ্রেশন ও কাস্টমসের আনুষ্ঠানিকতা শেষে ভারতে যেতে না পেরে নানা ভোগান্তির মধ্যে পড়ছেন যাত্রীরা।ওই সাথে যাতায়াতসহ ‘ভ্রমণকর’ পরিশোধ করায় আর্থিকভাবেও ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছেন তারা।

বিষয়টির সত্যতা স্বীকার করে বেনাপোল চেকপোস্ট ইমিগ্রেশন ওসি ওমর শরীফ বলেন, ‘পেট্রাপোল ইমিগ্রেশন ইদানীং সব যাত্রীকে গ্রহণ করছেন না।কিন্তু এ বিষয়ে তারা লিখিত বা মৌখিক কোনো কিছুই আমাদের জানায়নি।তবে এ ধরনের যাত্রী পারাপারে আমাদের কোনো বাধা নেই।’

এরফলে বেনাপোল চেকপোস্ট থেকে প্রতিদিন অনেক যাত্রী পারাপার হতে না পেরে ফিরে যাচ্ছেন। মাল্টিপোল ভিসা, বিজনেস ভিসা, ভ্রমন ভিসা কিম্বা চিকিৎসা ভিসা নিয়ে বেনাপোল চেকপোস্ট পেরিয়ে গেলেও ‘বেধে দেওয়া সময়’ পার না হলে তাদের পাসপোর্টে ‘রিফিউজ’ সিল মেরে ফেরত পাঠানো হচ্ছে।

ব্যবসায়ীক কাজে ভারত থেকে বাংলাদেশে এসেছেন কলকাতার সত্যজিৎ বিশ্বাস ও বিশ্বজিৎ মন্ডল। সত্যজিৎ বিশ্বাস বলেন,‘বিজনেস ভিসা নিয়ে বাংলাদেশে এসেছি কিন্তু এবার পেট্রাপোল ইমিগ্রেশন বলে দিয়েছেন সপ্তায় এক বারের বেশি পারাপার হওয়া যাবে না।ব্যবসায়ীক কাজে আমাদের প্রতিনিয়ত যাতায়াত করতে হয়।এ নির্দেশনা আমাদেরকে হতাশ করেছে।’
বিশিষ্ট ব্যবসায়ী বেনাপোল কাষ্টমস ক্লিয়ারিং ফরোয়াডিং এজেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের আইন বিষয়ক সম্পাদক মশিয়ার রহমান জানান, ভারতীয় হাইকমিশন ব্যবসায়ীদের মাল্টিপোল ভিসা দিয়ে থাকেন। মাল্টিপোল ভিসা এক বছর, তিন বছর ও পাঁচ বছর মেয়াদি হতে পারে।ভিসা পাওয়ার পর ব্যবসায়ীক কাজে ওই ব্যক্তি যে কোন সময় সীমান্ত পারাপার হতে পারতেন কিন্ত হঠাৎ করে এই জাতিয় নির্দেশনা ব্যবসায়ীক কাজকে বাধাগ্রস্থ করবে বলে মনে করেন তিনি।

যশোরের শার্শার কুলপালা গ্রামের শহিদুল ইসলাম (বিপি-০২৭৬১৮৩) ভ্রমন ভিসায় ২ অক্টোবর ভারতে গেলে তাকে পেট্রাপোল ইমিগ্রেশন রিফিউজ সিল মেরে ১ মাস পর আসতে বলে। ১ নবেম্বর ভারত যাওয়ার উদ্দেশ্যে পেট্রাপোল ইমিগ্রেশনে যাওয়ার তাকে পুনরায় ‘রিফিউজ’ সিল মেরে ফেরত পাঠানো হয় বলে শহিদুল জানান।

শহিদুল বলেন, তাকে আরো ১ মাস পরে আসতে বলেছেন। তবে কি কারনে তাকে ফেরত পাঠানো হয়েছে তার কোন সদুত্তর তারা দেয়নি। ফরিদপুরের আলফাডাঙ্গার হাদী রুহুল কুদ্দুসও ফেরত এসেছেন। কুদ্দুস বলেন, ওদের বেধে দেওয়া সময় পার না হওয়ায় আমার ভারত যাওয়া হলো না। ওরা পাসপোর্ট্রে রিফিউজ সিল মেরে ফেরত পাঠিয়েছেন।

বেনাপোল চেকপোস্ট ইমিগ্রেশন পুলিশের উপ পরিদর্শক হোসেন আলি বলেন, এব্যাপারে আমাদের কাছে কোন নির্দেশনা নেই। বিষয়টি নিয়ে দুই দেশের হাইকমিশনার পর্যায়ে আলোচনা করে সমাধান করা উচিৎ বলে মনে করেন এই পুলিশ কর্মকর্তা।






Editor : Faruk Syed
736 Carmella Cres. Ottawa, Ontario, K4A 4V8, Canada
Tel: 613 820 5537, nrbnews24@gmail.com, editor@nrbnews24.com