Space for rent
Wednesday, 15 August, 2018, 3:33 AM
অভিবাসী দিবসঃ ঢাকায় বিতর্ক প্রতিযোগিতা
Published : Monday, 18 December, 2017 Time : 11:30 PM, Count: 184
A+ A- A
নিজস্ব প্রতিবেদকঃ অভিবাসন ব্যয়, বেতন, কর্ম-পরিবেশ, কাজের ধরণ প্রভৃতি সম্পর্কে জেনে বিদেশে গেলে প্রতারিত হওয়ার সুযোগ নেই। নিরাপদ, স্বচ্ছ ও জবাবদিহিমূলক অভিবাসন ব্যবস্থাপনা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয় কাজ করছে। সচেতনতা তৈরির মাধ্যমে নিরাপদ অভিবাসন নিশ্চিত করা সম্ভব। পাশাপাশি আইনের যথাযথ প্রয়োগও প্রয়োজন। সামাজিক সচেতনতা যত বেশি বৃদ্ধি পাবে নিরাপদ অভিবাসনও তত বেশি নিশ্চিত হবে। ১৮ ডিসেম্বর বিকালে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে আন্তর্জাতিক অভিবাসন দিবস উপলক্ষ্যে এক সচেতনতামূলক বিতর্ক প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠানে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব ড. নমিতা হালদার এনডিসি এসব কথা বলেন। ডিবেট ফর ডেমোক্রেসি’র আয়োজনে প্রতিযোগিতার বিষয় ছিল কীভাবে নিরাপদ অভিবাসন নিশ্চিত করা যায়। 

প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ডিবেট ফর ডেমোক্রেসি’র চেয়ারম্যান হাসান আহমেদ চৌধুরী কিরণ। স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন বাংলাদেশ ওভারসিজ এমপ্লয়মেন্ট এন্ড সার্ভিসেস (বোয়েসেল)-এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক মরণ কুমার চক্রবর্তী।

প্রধান অতিথি ড. নমিতা হালদার বলেন, নিরাপদ অভিবাসন নিশ্চিত করতে সামাজিক সচেতনতা জরুরী। সচেতন না হয়ে বেতন ও কর্মক্ষেত্র সম্পর্কে না জেনেই অনেকে বিদেশে যাচ্ছে। দালালদের খপ্পরে পড়ে বিনা রশিদে টাকা দিয়ে দিচ্ছে। অনেকে কোন দেশে যাচ্ছে তাও না জেনেই বিদেশের পথে পাড়ি জমাচ্ছেন এবং প্রতারিত হচ্ছেন। তাই নিরাপদ অভিবাসন নিশ্চিত করতে সচেতনতা ও আইনের যথাযথ প্রয়োগ দরকার। তিনি বলেন মন্ত্রণালয় থেকে সচেতনতা বৃদ্ধির বিভিন্ন কার্যক্রম চলছে। পাশাপাশি স্মার্ট কার্ড প্রদান, অনলাইন পদ্ধতিতে ভিসা চেকিং, নারী কর্মীদের বিনা খরচে প্রেরণ, টাস্কফোর্স গঠনসহ প্রবাসগামী কর্মীদের টেকসই অভিবাসনের লক্ষ্যে  সরকার কাজ করছে। 

সভাপতির বক্তব্যে ডিবেট ফর ডেমোক্রেসি’র চেয়ারম্যান হাসান আহমেদ চৌধুরী কিরণ বলেন, চলতি বছর সরকার রেকর্ড সংখ্যক ১০ লক্ষ কর্মী পাঠানোর কথা বললেও অভিবাসন ব্যয় নিয়ন্ত্রণ করাই এখন সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ। কর্মীর সুরক্ষা, শোভন কাজের ব্যবস্থা, স্বাস্থ্যসম্মত কর্ম-পরিবেশসহ শ্রম-অধিকার নিশ্চিত করতে অভিবাসন কূটনীতি জোরদার করতে হবে। কিরণ আরো বলেন, চলতি বছরের আজকের তারিখ পর্যন্ত প্রেরিত কর্মীর সংখ্যা ৯ লক্ষ ৭০ হাজার। সরকারের লক্ষ্যমাত্রা হলো এ বছর ১০ লক্ষ কর্মী বিদেশে পাঠানো। বাংলাদেশ ব্যাংকের হিসাবে বর্তমান ট্রেন্ড অনুযায়ী ১০ লক্ষ কর্মী প্রেরণ করে প্রবাসী আয় হবে প্রায় ১২ বিলিয়ন ডলার। গত বছর ৭ লক্ষ ৫৭ হাজার কর্মী প্রেরণ করে প্রাপ্ত রেমিটেন্স ছিল ১৩.৬৯ বিলিয়ন ডলার। সে অনুযায়ী ২০১৭ সালে কর্মী প্রেরণ বাড়লেও প্রবাসী আয় থেকে প্রাপ্ত রেমিটেন্স কমেছে।  অবৈধ অভিবাসন প্রতিরোধে তিনি আরো বলেন, সচেতনতা বৃদ্ধিতে গণমাধ্যম, এনজিও, স্থানীয় ইউনিয়ন চেয়ারম্যান, মেম্বার, শিক্ষক, মসজিদের ইমামসহ সমাজের প্রতিনিধিত্বকারী সবাইকে নিয়ে একযোগে কাজ করতে হবে। আইন প্রয়োগের পাশাপাশি সামাজিক সচেতনতা তৈরি করা না গেলে অবৈধ অভিবাসন কোনোভাবেই ঠেকানো সম্ভব হবে না। 

‘সচেতনতা বৃদ্ধির মাধ্যমেই নিরাপদ অভিবাসন নিশ্চিত করা সম্ভব’-শীর্ষক সংসদীয় ধারার এই বিতর্ক প্রতিযোগিতায় সরকারি দল হিসেবে প্রাইম ইউনিভার্সিটি এবং বিরোধী দল হিসেবে বাংলাদেশ  ইউনিভার্সিটি অফ বিজনেস এন্ড টেকনোলজি অংশগ্রহণ করে। প্রতিযোগিতা শেষে অংশগ্রহণকারী বিতার্কিকদের মাঝে ট্রফি, ক্রেস্ট, সার্টিফিকেট ও নগদ অর্থ প্রদান করা হয়। এছাড়াও অনুষ্ঠানে আয়োজিত রচনা, চিত্রাঙ্কন, অভিবাসন মেলায় সেরা স্টলের পুরস্কার বিতরণ করা হয়। 

অনুষ্ঠানে মন্ত্রনালয়ের ও দপ্তর/সংস্থার উর্দ্ধতন কর্মকর্তা, প্রাইম ইউনিভার্সিটি এবং বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব বিজনেস এন্ড টেকনোলজির ছাত্র-ছাত্রীবৃন্দ, অনুষ্ঠানে আগত অতিথিবৃন্দসহ প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।




Editor : Faruk Syed
736 Carmella Cres. Ottawa, Ontario, K4A 4V8, Canada
Tel: 613 820 5537, nrbnews24@gmail.com, editor@nrbnews24.com